Main Menu

বাংলাদেশি রোবট কথা বলবে বাংলায়!

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রযুক্তির নিত্য নতুন উদ্ভাবনে বরাবরই আলোচনায় থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারে এমন রোবট তৈরি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষার্থী। যার তত্ত্বাবধানে ছিলেন অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। সংশ্লিষ্টদের দাবি এটি দেশের প্রথম সোস্যাল ইন্টাররেক্সন রোবট।

রোবো নামের একটি রোবট। যে কিনা বাংলা-ইংরেজির মিশেলে কথা বলতে পারে সাবলিলভাবে।

প্রায় ১ মাসের বেশি চেষ্টায় রোবটটি তৈরি করেছেন সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ জন তরুণ। এটি বানাতে খরচ হয়েছে প্রায় ১ লাখ টাকা।

রোবো সাস্টের সদস্য ফারহানুল ইসলাম বলেন, ‘রোবটটির পুরা বডিতে ২৪ টা মটর ব্যবহার করা হয়েছে। রোবটের মাথায় ব্যবহার করা হয়েছে ৮ টা মটর। আমাদের প্রধান লক্ষ ছিল রোবটের মধ্যে আমরা যেন শারীরিক অনুভূতিগুলো ভালভাবে এ্যাপ্লাই করতে পারি’।

রোবো সাস্টের দলনেতা নওশাদ সঞ্চিব বলেন, ‘মানুষের আশেপাশে রোবট থাকবে, মানুষ রোবট ব্যবহার করবে। আমরা এই রোবটা তৈরি করেছি সোস্যাল ইন্টাররেক্সন এই জিনিসটা মাথায় রেখে’।

মানুষের দৈহিক গঠনের সাথে মিল রেখে ডিজাইন করা রোবটটি মানুষের নানা প্রশ্নের জবাব দিতে পারলেও এখনও চলাফেরা করতে পারেনা। তবে সেই চেষ্টা করে যাচ্ছেন রোবো সাস্টের সদস্যরা। আর এজন্য দরকার আর্থিক সহযোগিতা।

রোবো সাস্টের আরেক সদস্য তৌফিক রহমান বলেন, ‘আমরা যদি এই রোবটাকে হাঁটাতে চাই তার জন্য মেকানিক্যাল অনেক কিছু যুক্ত করতে হবে। সেজন্য উন্নতমানের মেকানিক্যাল ল্যাব দরকার’।

কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, ‘বাংলাদেশে সাইন্স ফিকশন সমিতি নামে একটা সংস্থা আছে তারা আমাদের ছাত্রদের বলে তোমরা এধরনের একটা রোবট তৈরি করে দিতে পারবে কিনা। সেজন্য তারা এই রোবট তৈরি করে দিয়েছে। পরবর্তি প্রজেক্ট হিসাবে আমি যতদূর জানি এই রোবটটা এতদিন দাঁড়িয়ে ছিল এখন হাঁটানোর চেষ্টা করা হচ্ছে’।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.