Main Menu

অর্থ ফিরিয়ে আনাই প্রথম কাজ : ফজলে কবির

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন গভর্নর ফজলে কবির বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে বের হয়ে যাওয়া অর্থ ফিরিয়ে আনাই প্রথম কাজ। পাশাপাশি এর পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে সে ব্যবস্থা করতে হবে।

রোববার দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকে নতুন গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর নিজ দপ্তরে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

ফজলে কবির বলেন, ‘এই ঘটনার পর বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে যে আশা হারাতে বসেছিল, তা যেন আর না থাকে, সেটা নিশ্চিত করতে হবে। আরো বেশি নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে সংস্কার করে নতুন উদ্যমে কাজ করব।’

বাংলাদেশ ব্যাংক কোনো তদন্ত কমিটি গঠন করবে কি না- এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ডেপুটি গভর্নরদের সঙ্গে বসে পরবর্তী কর্ম নির্ধারণ করব। আমরা কোনো কমিটি গঠন করব না। সরকার যে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে সেই তদন্ত কমিটির নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করব। বাংলাদেশ ব্যাংকের ত্রুটি চিহ্নিত করে সেটা উত্তরণ করতে সক্ষম হব।’

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের চলমান কর্মসূচিগুলো চলবে। আরো উন্নয়ন করার জন্য যা যা করা দরকার করব।’

তিনি বিশ্বব্যাংকের আইটি বিশেষজ্ঞ রাকেশ আস্তানা সম্পর্কে বলেন, ‘তিনি চলমান প্রকল্পের পরামর্শক হিসেবে কাজ করছেন। উনার ব্যাপারে আমরা কি করব, সেটা তদন্তের পর বলা যাবে।’

এর আগে নতুন গভর্নর ফজলে কবির কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পৌঁছালে ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহাম্মদ রাজী হাসান ও এস কে সুর চৌধুরী ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভে সঞ্চিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের প্রায় ৮০০ কোটি টাকা ‘হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে’ লোপাটের বিষয়টি গোপন রাখায় চাপের মধ্যে গত মঙ্গলবার পদত্যাগ করেন গভর্নর ড. আতিউর রহমান। ওই দিনই অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত নতুন গভর্নর হিসেবে ফজলে কবিরের নাম ঘোষণা করেন।

বুধবার বিকেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করে প্রাক্তন অর্থসচিব ও সোনালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ফজলে কবিরকে আগামী ৪ বছরের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে নিয়োগ দেয়। নিউইয়র্কে থাকা অবস্থায় নিয়োগ পাওয়া নতুন গভর্নর বৃহস্পতিবার ঢাকায় ফেরেন।






Related News

Comments are Closed