Main Menu

ইউরোপে ব্যাপক ধরপাকড়, প্যারিসে হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ

ব্রাসেলসে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হামলায় ৩১ জনের প্রাণহানির পর ইউরোপ জুড়ে ব্যাপক ধরপাকড় অভিযান শুরু হয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের কয়েকটি দেশে শুক্রবার অভিযান চালিয়ে পুলিশ অন্তত ১০ জনকে আটক করেছে। এদিকে, ফ্রান্স বলছে, রাজধানী প্যারিসের অদূরে নতুন করে জঙ্গিদের হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে ব্রাসেলসে ৬, জার্মানিতে দুই ও ফ্রান্সে একজনকে আটক করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। নভেম্বরে প্যারিস হামলার সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্রাসেলসে মঙ্গলবারের হামলার তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

শুক্রবার পুলিশি অভিযানের সময় বেলজিয়ামের চায়েরবিক অঞ্চলে নতুন করে অন্তত দুটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। দেশটির সংবাদসংস্থা বেলগা নিউজ অ্যাজেন্সির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সন্দেহভাজন হামলাকারীদের ধরতে দেশটির চায়েরবিকে ব্যাপক পরিসরে অভিযান চালায় পুলিশ।

চায়েরবিকের একটি বাড়িতে তল্লাশির সময় নতুন এ বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। এ সময় সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে আত্মসমপর্ণের নির্দেশ দেয় পুলিশ। পরে ওই ব্যক্তি তা প্রত্যাখ্যান করলে পুলিশ তাকে নিস্ক্রিয় করে। তবে বিস্ফোরণের বিষয়ে সরকারি কর্মকর্তাদের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এছাড়া চায়েরবিকের পার্শ্ববর্তী মায়জার স্কয়ার বন্ধ করে দিয়ে আর্মড পুলিশ ও সেনাবাহিনীর গাড়ি ওই স্কয়ারে অবস্থান নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার এই চায়েরবিক অঞ্চল থেকে কয়েকজনকে আটক করা হয়। ফ্রান্স কর্তৃপক্ষ বলছে, প্যারিসের কাছের একটি শহরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অভিযান চালায় পুলিশ। এই এলাকায় নতুন করে হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ করা হয়েছে।

এদিকে, ব্রাসেলস সফরের পর জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটকে ধ্বংস করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী চার্লস মিশেলের পাশে থাকার অঙ্গীকার করে কেরি বলেছেন, আইএসকে ধ্বংস করতে পশ্চিমা জোট লড়াই অব্যাহত রাখবে। তিনি বলেন, আমরা ভীত হবো না, আমরা নিবৃত্ত হবো না।






Related News

Comments are Closed