Main Menu

গাজীপুরের মেয়র মান্নান জামিনে মুক্ত

গাজীপুর প্রতিনিধি
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সাময়িক বরখাস্ত মেয়র ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক এম এ মান্নান জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ ডায়াাবেটিক (বারডেম) হাসপাতালের প্রিজন সেল থেকে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মুক্তি পান সাময়িক বরখাস্ত এ মেয়র। এমএ মান্নান বারডেম হাসপাতাল থেকে মুক্তি লাভের পর তিনি নিজ বাড়িতে যান। ২০১৫ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় রাজধানী ঢাকার বারিধারার ডিওএইচএস এর নিজ বাসা থেকে মান্নানকে একই বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি রাতে গাজীপুরে একটি যাত্রীবাহীবাসে পেট্রলবোমা হামলা মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেন। তারপর থেকে তিনি কারাগারে আটক রয়েছেন। অধ্যাপক এমএ মান্নানের আইনজীবী গাজীপুর বারের সভাপতি এডভোকেট ড. শহিদউজ্জামান জানান, মোট ২২টি মামলায় মান্নান উচ্চ আদালতে থেকে জামিন লাভের পর বুধবার কারা মুক্ত হলেন।

ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কিডনির সমস্যাসহ নানা রোগে আক্রান্ত অধ্যাপক এমএ মান্নানকে গত বছর ২১মে চিকিৎসকের পরামর্শে কাশিমপুর কারাগার থেকে ঢাকার বারডেমে প্রেরণ করা হয়। মুক্তি লাভের আগ পর্যন্ত তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মুক্তিলাভের সময় হাসপাতাল গেটে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা হুমায়ুন কবীর খান, সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সুরুজ আহমেদ, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম মনির, সিটি কাউন্সিলর তানভীর আহমেদ, ছাত্রদল নেতা নাসির উদ্দিন, বিএনপি নেতা আব্দুল খালেক ডিলার। এ পর্যন্ত ২২টি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এসব মামলার প্রায় সবগুলোই বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অবরোধ ও হরতালকালে গাড়ী ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, নাশকতা, বিস্ফোরক ও পুলিশের সরকারি কাজে বাধা দানসহ বিভিন্ন আইনে দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলার মধ্যে জয়দেবপুর থানায় ১৩টি, টঙ্গী মডেল থানায় ২টি, শ্রীপুর মডেল থানায় ২টি ও কালিয়াকৈর থানায় ২টিসহ মোট ২২টি মামলার সবক’টিতেই ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন।

গত বছরের ১৯ আগষ্ট স্থানীয় সরকার, পল¬ী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় (সিটি কর্পোরেশন-২ শাখা) সহকারি সচিব এ. কে.এম আনিছুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র অধ্যাপক এমএ মান্নানকে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন ২০০৯ (২০০৯ সালের ৬০ নং আইন) এর ধারা ১২ এর উপধারা (১) মোতাবেক বরখাস্তের আদেশ দেয়া হয়। তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত নাশকতার মামলার আদালতে অভিযোগপত্র গৃহীত হওয়ায় এ ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে। উলে¬খ্য, মেয়র অধ্যাপক এমএ মান্নানের অবর্তমানে একই বছরের ৮ মার্চ থেকে প্যানেল মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।






Related News

Comments are Closed