Main Menu

গাজীপুর দ্বিতীয় যুগ্ম সাব-রেজিষ্ট্রার অফিস : পর্ব- পাঁচ মনিরুল ছিলেন প্রাইভেট শিক্ষক, হাত-পা ধরে হয়ে গেলেন সাব-রেজিষ্ট্রার

স্টাফ রিপোর্টার : পত্রিকান্তরে গাজীপুর সদর দ্বিতীয় যুগ্ম সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের খন্ডকালিন সাব রেজিষ্ট্রার মনিরুল ইসলাম মনিরের বিরুদ্ধে যাবতীয় অনিয়ম দুর্নীতির খবর পত্রিকান্তরে সিরিজ আকারে প্রকাশিত হলেও, টনক নড়ছেনা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের। এতে সচেতন মহলসহ ওই অফিস সংশ্লীষ্ট ভূক্তভোগীদের মাঝে দেখা দিয়েছে বিষ্ময়। জেগেছে প্রশ্ন- কি তেলেছমাতির কারণে তার বিরুদ্ধে যথাযথ কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিচ্ছে না।
এ প্রতিবেদক বিভিন্ন সূত্রে জানতে পেরেছেন। মনিরুল ইসলামের বাড়ি খুলনায়। খুব বেশী সচ্ছল পরিবারের ছেলে নন তিনি। ঢাকায় এসে প্রাইভেট পড়াতেন। সেই সুবাদে বর্তমান আই.জি.আর এর ছেলেকে তিনি প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগ পান। পরে আই.জি.আর এর হাতে পায়ে ধরে তিনি সাব-রেজিষ্ট্রার পদে চাকুরী বাগিয়ে নেন। আর এখন মনিরুল হুঙ্কার মারেন, ঘুষ খান এবং দলিল লেখকসহ জমি ক্রেতা-বিক্রেতাকে সম্মান হানী করেন। শুধু তাই নয়- তিনি দলিল লেখকদেরকে প্রায় সময়ই বেয়াদব বা বদমাইশ বলেও গালাগাল করে থাকেন। হাব-ভাবে তিনি বুঝাতে চান, তার কথাই কথা, আর যারা তার কাছে সেবা পেতে আসেন তাদের কথা লতা-পাতা।
মনিরুল ইসলাম তার গুরু কেরানী নুরুর পা ধোয়া পানি ছাড়া অন্য কোন কিছু খেতে পারেন না। অর্থাৎ নুরুর মাধ্যমে ঘুষ গ্রহণ করে খান। কথায় বলে, গরীব হলো আবাইত্তা। যা পায়, তা খায়। সাব-রেজিষ্ট্রার মনিরুল ইসলাম ও সেই আবাইত্তা। তিনি সব খেয়ে গাজীপুরের দলিল লেখকদেরকে জিম্মি করে, যা পাচ্ছে তা নিয়ে খুলনায় অট্টালিকা গড়ার স্বপ্ন দেখছে।






Related News

Comments are Closed