Main Menu

ফ্রান্সে অভিবাসীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ

ফ্রান্সের ক্যালিয়াস বন্দরে অভিবাসীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। বন্দরে ‘দ্য জাঙ্গল’ নামে পরিচিত অভিবাসীদের অস্থায়ী শিবির সোমবার পুলিশ ভাঙতে গেলে এই সংঘর্ষ বাঁধে।

অভিবাসীরা ব্রিটেনে যাওয়ার চেষ্টায করতে অস্থায়ী ওই শিবিরে তাবু গেড়ে অবস্থান করছিল। এসব অভিবাসীদের সবাই মধ্যপ্রাচ্য, আফগানিস্তান ও আফ্রিকা থেকে আসা। সোমবার বিকেলে পুলিশ ক্যাম্পের দক্ষিণে অবস্থানরত অভিবাসীদের তাবুগুলো ভাঙতে অভিযান চালায়। এখানে অবস্থানরত অভিবাসীদের অভ্যর্থণা কেন্দ্রে নিয়ে আসার চেষ্টা করছিল পুলিশ। এসময় পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে অভিবাসীরা পাথর ছুঁড়ে মারতে শুরু করে। জবাবে ফরাসি দাঙ্গা পুলিশও তাদের দিকে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। অভিবাসীদের অন্তত ১২টি অস্থায়ী ঘরে আগুনও দেওয়া হয়েছে।

অবার্গ ডি মাইগ্রেন্টস নামে অভিবাসীদের সমর্থক একটি গ্রুপের কর্মি ফ্রাঙ্কোয়েস গুয়েনক বলেন, অভিবাসীদের কাঠের আড়ালে লুকানোর চেষ্টা করছে আর পুলিশ তাদের খুঁজে খুঁজে বের করছে।

শরণার্থীদের সঙ্গে এমন আচরণের বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার প্রধান লেনার্দ ডয়েল বলছেন, ‘জাতিসংঘের চুক্তি অনুযায়ী অভিবাসীদের বিষয়ে বিভিন্ন বাধ্যবাধকতা রয়েছে, মানবিক দায়বদ্ধতাও রয়েছে। অভিবাসন প্রত্যাশী ও শরণার্থীদের ভুললে আমাদের চলবে না। তারা শরণার্থী হতে পারে কিন্তু তারা না পারতেই আরেকটি দেশের আশ্রয়প্রার্থী।’

তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তান, সিরিয়া ও ইরাক থেকে আসা এসব শরণার্থীদের দেখাশোনা করা আমাদের কর্তব্য, তাদের ওপর জলকামান ছোড়ার বদলে তাদের সাহায্য করা উচিত।’






Related News

Comments are Closed