Main Menu

বিয়ানীবাজারে স্ত্রীকে খুন করে স্বামীর আত্মসমর্পন

ধারালো দা দিয়ে নিজ স্ত্রীকে উপর্যপুরি কুপিয়ে খুন করে থানায় আত্নসমর্পন করেছে ঘাতক স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে সিলেটের বিয়ানীবাজার পৌরসভার শ্রীধরা গ্রামে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনার সংবাদে উপজেলা জুড়ে আতংক ও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।
পুলিশ জানায়, বিয়ানীবাজার পৌরসভার শ্রীধরা গ্রামের নিমার আলীর কলোনীর একটি কক্ষে স্ত্রী ও তিন সন্তানকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন ছিদ্দিক আহমদ (৩৫)। তিনি শ্রীধরা গ্রামের আলাউদ্দিনের পুত্র। পারিবারিক কলহের জের ধরে রবিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে দা দিয়ে স্ত্রী আয়েশা বেগমের (২৮) ঘাড়সহ শরিরের বিভিন্ন স্থানে কোপ দেয়। দায়ের কোপে আয়েশা মাটিতে লুটিয়ে পড়লে কক্ষে তালা দিয়ে ছিদ্দিক বিয়ানীবাজার থানায় গিয়ে বিকাল চারটার দিকে আত্মসমর্পন করে। আয়েশা শ্রীধরা গ্রামের তাহির আলীর কন্যা। ছিদ্দিকের সাথে প্রায় ৬ বছর আগে তার বিয়ে হয়েছিলো।
বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জুবের আহমদ ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ছিদ্দিকের কথাবার্তা অসংলগ্ন হওয়ায় প্রথমে মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হয়েছিলো। তারপরও সর্তকতামুলকভাবে তাকে থানা হেফাজতে রেখে ঘটানস্থলে গিয়ে তালা দেয়া কক্ষ থেকে আয়েশার লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশের সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতলের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি জানান, ছিদ্দিক অপরাধ স্বীকার করায় তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।






Related News

Comments are Closed