Main Menu

বেইজিংকে কড়া হুঁশিয়ারি ওয়াশিংটনের

দক্ষিণ চীন সাগরের বিরোধপূর্ণ দ্বীপে তৎপরতা বাড়ানোয় বেইজিংকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য কঠোর পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যাশ্টন কার্টার। সানফ্রান্সিসকোর কমনওয়েলথ ক্লাবে দেয়া এক ভাষণে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন।

অ্যাশ্টন কার্টার বলেন, দক্ষিণ চীন সাগরকে সামরিকীকরণ করা চীনের জন্য উচিত হবে না। সুনির্দিষ্ট তৎপরতার সুনির্দিষ্ট পরিণতি আছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত বলেননি তিনি।

প্রতি বছর বিশ্বের ৩০ শতাংশ মালবাহী জাহাজ দক্ষিণ চীন সাগর দিয়ে যাতায়াত করে। এই সাগরের বিতর্কিত এলাকাগুলোকে নিজ দেশের অন্তর্ভুক্ত বলে দাবি করছে চীন। তবে একই ধরনের দাবি করছে ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, ব্রুনাই এবং তাইওয়ান। বিরোধপূর্ণ এসব এলাকা হলো স্পার্টলি, পারাসেল, প্রাসাটাস এবং স্কেয়ারবোরো দ্বীপপুঞ্জ।

বিশ্বের অন্যতম পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র আঞ্চলিক এ বিরোধে জড়িয়ে পড়েছে। চীনের বিরুদ্ধে ফিলিপাইন, জাপান ও তাইওয়ানের মতো মিত্রদেশগুলোর পক্ষ নিয়েছে ওয়াশিংটন। কয়েক দফা মার্কিন গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডেস্ট্রয়ার ওই এলাকা দিয়ে চলাচল করেছে।

সর্বশেষ গত ৩০ জানুয়ারি পারাসেল দ্বীপপুঞ্জের ট্রিটন দ্বীপের ১২ নটিক্যাল মাইলের মধ্যদিয়ে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রবাহী রণতরী ইউএসএস কার্টিস উইলবার অতিক্রম করেছে।






Related News

Comments are Closed