Main Menu

ভারত অসহিষ্ণুতা নিয়ে মুখ খুললেন আমির

সম্প্রতি এক টিভি সাক্ষাৎকারে ভারত অসহিষ্ণুতা নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন বলিউডের তারকা অভিনেতা আমির খান।

তিনি জানান, ‘আমি কখনোই বলিনি যে ভারত অসহিষ্ণু’। আমাকে ভুলভাবে উদ্ধৃত করা হয়েছিল। ‘অসহিষ্ণুতা বাড়ছে’ বলা, আর ‘অসহিষ্ণু’ বলার মাঝে পার্থক্য আছে।

আমির খান বলেন, ‘আমি আমার সাক্ষাৎকারে বলেছিলাম যে হতাশা আছে, নৈরাশ্য আছে, নিরাপত্তাহীনতার ভয় আছে ও অসহিষ্ণুতা বেড়ে চলেছে। কিন্তু যা রটেছে, তা পুরোটাই আলাদা।’

এর আগে খবর রটেছিল যে আমির খানের স্ত্রী কিরণ রাও দেশ ছেড়ে যাওয়ার কথা ভাবছেন। আর এই দেশ ত্যাগ করতে চাওয়ার কারণ হিসেবে দেখানো হয়েছিল ভারতের ‘ক্রমেই বেড়ে চলা অসহিষ্ণুতা’র বিষয়টি।

গত শনিবার এক সাক্ষাৎকারে আমির খান বেশ স্পষ্ট করেই বলেছেন, ভারত ‘অনেক সহিষ্ণু’, কিন্তু কিছু মানুষ আছে যারা বিদ্বেষ ছড়িয়ে বেড়ায়। এদের লাগাম টেনে ধরা জরুরি।

একটি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া এই সাক্ষাৎকারে আমির বলেন, ‘আমাদের দেশটা খুবই সহিষ্ণু, কিন্তু কিছু মানুষ ইচ্ছা করে বিদ্বেষ ছড়ায়’। যারা চায় এই বিশাল দেশটি ভেঙে যাক, তারা সব ধর্মের ভেতরেই আছে। একমাত্র ‘মোদিজি’-ই পারেন এদের থামাতে। তাকেই বলা উচিত আমাদের।

গণমাধ্যমকে খবর প্রচারে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়ে আমির বলেন, ‘প্রতিটি ভারতীয় নাগরিকই ভয়ের মধ্যে আছেন’। গণমাধ্যমের প্রতি আমার আরজি থাকবে, তারা যেন এ ধরনের খবরগুলোর গুরুত্ব কম দেয়। কারণ এগুলো জনমনে নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি করে। স্ত্রী কিরণ রাওয়ের নিরাপত্তার খাতিরে দেশ ছেড়ে যাওয়ার খবর প্রসঙ্গে আমির বলেন, ‘আমরা কোথাও যাচ্ছি না’।

তার স্ত্রী একজন মা—এ কথা উল্লেখ করে আমির বলেন, ‘প্রত্যেক মা-ই তার সন্তানের জন্য দুশ্চিন্তা করেন’। অনেক বিষয় নিয়েই আমরা আলাপ করি। এর অর্থ এই নয় যে তার সবগুলোই আমরা কাজে পরিণত করি। কিরণ (আমির খানের স্ত্রী) আসলে তার অনুভূতি প্রকাশ করেছে। আমরা এখানেই জন্মেছি, মরবও এখানেই।






Related News

Comments are Closed