Main Menu

হার্টের ক্ষতি হচ্ছে যেভাবে

হার্ট বা হৃৎপিণ্ড শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলোর একটি। চর্বিজাতীয় খাবার বেশি খাওয়া, শাকসবজি কম খাওয়া, নিয়মিত ব্যায়াম না করা হৃৎপিণ্ডের স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়। তবে এর বাইরেও কিছু বিষয় রয়েছে, যেগুলো হৃৎপিণ্ডের নানা সমস্যা তৈরি করে। বায়ুদূষণের কারণে হার্টের অসুখ হওয়ার আশঙ্কা থাকে। দূষিত বায়ুতে মিশে থাকা নাইট্রোজেন অক্সাইড ও সালফার ডাইঅক্সাইড হার্ট অ্যাটাকের কারণ হতে পারে। প্রতিদিন অন্তত আট ঘণ্টা ঘুমানো জরুরি। পাঁচ ঘণ্টার কম ঘুম শরীরে খারাপ প্রভাব ফেলে। এটি হৃৎপিণ্ডের ক্ষতি করতে পারে। এ ছাড়া ঘুমের মধ্যে নাক ডাকাও হৃৎপিণ্ডের জন্য বেশ ক্ষতিকর। দিনে চার ঘণ্টা টেলিভিশন দেখা হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়। তাই টেলিভিশন দেখার পরিমাণ কমিয়ে দেয়ার পরামর্শই দেন বিশেষজ্ঞরা। অনেক নারীরই অনিয়মিত ঋতৃস্রাবের সমস্যা থাকে। গবেষণায় বলা হয়, যাদের অনিয়মিত ঋতস্রাবের সমস্যা থাকে, তাদের হৃদরোগের ঝুঁকি বেশি হয়। হরমোনের ভারসাম্যহীনতা হৃদরোগের কারণ হতে পারে। ঋতুস্রাব অনিয়মিত হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। চাপে ভুগতে হয় এমন চাকরি হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়। আপনি যদি রাতের পালায় কাজ করেন, তা হলে তা শরীরের স্বাভাবিক গতিকে প্রভাবিত করে। এটি ক্ষতির কারণ হতে পারে।






Related News

Comments are Closed