Main Menu

মাইগ্রেনের ব্যথা দূর করার সহজ উপায়

এখন প্রায় সবার কাছে ‘মাইগ্রেন’ খুব পরিচিত নাম। অসহনীয় মাথা ব্যথার অপর নাম হচ্ছে মাইগ্রেন। মাইগ্রেনের ব্যথা অন্য সব মাথা ব্যথা থেকে ভিন্ন। মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হলে সহজে কমেনা। সাধারণত মাইগ্রেনের ব্যথা মাথার একপাশ থেকে শুরু হলেও আস্তে আস্তে এটি সম্পূর্ণ মাথায় ছড়িয়ে যেতে থাকে।

মাইগ্রেনের সমস্যায় মাথা ব্যথার সঙ্গে আরও কিছু শারীরিক সমস্যা দেখা যায়। ঘাড়সহ মাথা ব্যথা, আবছা দেখা, অস্বস্তিকর অনুভূতি, বমি বমি ভাব, শব্দ এবং উজ্জ্বল আলো সহ্য না হওয়া, বিষন্নতা, অনিয়মিত ঘুম ইত্যাদি মাইগ্রেনের অন্যতম লক্ষ্যণ।

মাইগ্রেনের স্থায়ী কোন সমাধান নেই। ব্যথা কমানোর জন্য সাধারণত ব্যথানাশক ঔষুধ খেয়ে থাকেন। আবার অনেকে ঘরোয়া উপায়ে এই ব্যথা থেকে মুক্তি পাবার চেষ্টা করে থাকে। মাইগ্রেন ব্যথা দূর করার সহজ এবং কার্যকরী একটি উপায় হচ্ছে হিমালয় সল্ট বা বিট লবণ ও লেবুর রস। বিট লবণ মাইগ্রেনের ব্যথা দূর করতে বেশ কার্যকরী। তাহলে দেখে নিনি খুব সহজে মাইগ্রেনের ব্যথা দূর করার উপায়-

যা যা লাগবে
– অর্ধেক লেবুর রস
– হিমালয় সল্ট বা বিট লবণ

যেভাবে তৈরি করবেন
১। প্রথমে অর্ধেক লেবুর রস করে নিন।

২। এর সাথে এক টেবিল চামচ উচ্চ পরিবেশিত ঘনত্ব সম্পন্ন হিমালয় বা বিট লবণ মিশিয়ে নিন।

৩। সাধারণত অর্ধেক লেবুর রসের সঙ্গে হিমালয় সল্ট মেশানো হয়ে থাকে। তবে আপনি চাইলে একগ্লাস লেবুর রসের সাথে হিমালয় ক্রিস্টাল সল্ট মিশিয়ে নিতে পারেন।

৪। মাইগ্রেনের ব্যথার সময় এই পানীয়টি খেতে পারেন।

যেভাবে কাজ করে
হিমালয় সল্টে ৮৪টির মত মিনারেল ও ইলেক্ট্রোলাইট উপাদান আছে। হিমালয় সল্টের কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। যাদের অ্যাসিডিটি সমস্যা আছে তারা অর্ধেক লেবুর রসের সাথে হিমালয় সল্ট মিশিয়ে পান করুন।

এই পানীয়টি আপনার মাইগ্রেনের ব্যথা কমিয়ে দেবার পাশাপাশি বমি বমি ভাবসহ অন্যান্য শারীরিক সমস্যাও দূর করে দিবে। এটি ব্যথা হ্রাস করে আপনাকে কাজে শক্তি যুগিয়ে থাকে।

সতর্কতা: যাদের উচ্চ রক্তাচাপের সমস্যা আছে বা অন্য কোনো কারণে অতিরিক্ত লবণ খাওয়া মানা, তারা অবশ্যই ডাক্তারের সাথে কথা বলে এ পানীয়টি পান করবেন।






Related News

Comments are Closed