Main Menu

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিজামী

জামায়াতে ইসলামীর নেতা ও মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাঁসির দণ্ড পাওয়া মতিউর রহমান নিজামীকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়েছে।

রোববার রাত পৌনে ১২ টার দিকে বিশেষ নিরাপত্তায় মতিউর রহমান নিজামীকে কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়।

এর আগে তাকে কাশিমপুর থেকে নিয়ে রওনা দেয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি বিশেষ সেলে নিজামীকে রাখা হয়েছে বলে দায়িত্বশীলরা নিশ্চিত করেছেন।

রোববার রাত ১২ টার দিকে কেন্দ্রীয় কারাগারের সুপার জাহাঙ্গীর কবির রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে যেহেতু রায় হয়েছে, সেহেতু তাকে বিশেষভাবে রাখার প্রয়োজন রয়েছে। তাই তাকে এই কারাগারে আনা হয়েছে। একই সঙ্গে তাকে একটি বিশেষ সেলে রাখা হয়েছে।’

ফাঁসি কবে কার্যকর হতে পারে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সময় হলেই জানতে পারবেন।’

এর আগে কাশিমপুর কারাগার পার্ট ২-এর কারারক্ষী জাহাঙ্গীর সাংবাদিকদের বলেন, ‘পুলিশের প্রিজনভ্যানে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে নিজামীকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়েছে।’

গ্রেপ্তারের পর থেকেই নিজামীকে কাশিমপুরের কারাগারে রাখা হয়। বৃহস্পতিবার তার রিভিউ আবেদন খারিজ করে দেন আপিল বিভাগ।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ২০১৪ সালের ২৯ অক্টোবর নিজামীকে ফাঁসির আদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। পরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন নিজামী। ট্রাইব্যুনালের দেওয়া ফাঁসির আদেশ বহাল রেখে চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি রায় ঘোষণা করেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

গত ১৫ মার্চ আপিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়। এরপর ২৯ মার্চ নিজামীর আইনজীবীরা সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন জমা দেন। নিজামীর বিরুদ্ধে আনা ১৬টি অভিযোগের মধ্যে আটটি ট্রাইব্যুনালে প্রমাণিত হয়।






Related News

Comments are Closed