Main Menu

মিশার ক্ষোভ নিয়ে মুখ খুললেন মাহি

ঢাকাই সিনেমার হালের ক্রেজ চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির হঠাৎ বিয়ে অনেকটা শোরগোল বাঁধিয়েছে চলচ্চিত্রপাড়া এবং তার ভক্তদের মনে। তার বিয়েতে শোবিজের নানা অঙ্গণের তারকারা তাকে শুভেচ্ছায় সিক্ত করছেন। ভক্তরাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রিয় নায়িকার নতুন জীবনকে অভিনন্দিত করেছেন।

তবে হুট করে মাহির বিয়ে হয়ে যাওয়াতে দারুণ ক্ষেপেছেন চলচ্চিত্র অভিনেতা মিশা সওদাগর। তিনি মাহির এই সিদ্ধান্তকে ‘ফাজলামো’ বলে অভিহিতি করেছেন। বুধবার (২৫ মে) রাতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফেসবুক একাউন্টে তিনি এ বিষয়ে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দেন।

সেখানে মিশা লেখেন, ‘ফাজলামি বন্ধ করা উচিত। না হলে ইন্ডাস্ট্রি ফাইনালি বন্ধ হয়ে যাবে। একটা শিল্পী যখন তার অভিনয়ের জাদু দেখিয়ে বক্স অফিস হিট করে ইন্ডাস্ট্রির অপরিহার্য হয় তখন সে ইন্ডাস্ট্রির অংশ হয়ে যায়। সে তখন কোনো হুটহাট সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। কারণ তার দায়বদ্ধতা বেড়ে যায়। কিন্তু আজকালকার নায়ক-নায়িকাদের সিদ্ধান্ত ইন্ডাস্ট্রির ক্ষতি করছে।’

মাহির বিয়ের ঘটনা নিয়ে লিখেছেন, ‘আমার দেখা নতুনদের মধ্যে সবচেয়ে সম্ভাবনাময়ী নায়িকার হঠাৎ বিয়ের সংবাদে আমি হতবাক।অভিনয়গুণে কেউ যখন জনপ্রিয়তা অর্জন করে তখন তিনি চলচ্চিত্রের সম্পদ হয়ে ওঠেন ও চলচ্চিত্রশিল্পের অংশ হয়ে ওঠেন। এ অবস্থায় হুটহাট কোনো সিদ্ধান্ত তার দায়বদ্ধতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে।

এদিকে খলঅভিনেতা মিশার এমন ফেসবুক স্ট্যাটসের প্রেক্ষিতে বেশ জল ঘোলা হয়। প্রথমে একেবারেই চুপ থাকলেও শুত্রবার দুপুরে জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপকালে মুখ খোলেন মাহি।

তিনি বলেন, মিশা ভাইয়ের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আমি বলতে চাই- তিনি অন্যদের উদাহরণ টেনে আমাকে যেটা বলেছেন তেমনা নাও তো হতে পারে! আর মিশা ভাই যেটা লিখেছেন সেটা আমাকে ও চলচ্চিত্রকে ভালোবাসেন বলেই এমনটা বলেছেন। যারা মনে করছেন আমি চলচ্চিত্র থেকে হারিয়ে যাব তাদের বলছি- আমি অবশ্যই ছবিতে অভিনয় করবো। আমার নতুন পরিবার এ ব্যাপারে আমাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছেন। কারণ একমাত্র চলচ্চিত্রের কারণেই আমি আজকের মাহিয়া মাহি।

এই অগ্নিকন্যা আরো বলেন, অভিনয় যদি ছেড়েই দেব তবে আমার গায়ে হলুদের ফাঁকে নতুন ছবির জন্য মিটিংয়ে বসতাম না। খুব শিগগির বাপ্পীর সঙ্গে নতুন একটি ছবিতে কাজ করা কথা হয়েছে। এ বিষয়ে কিছুদিন পর বিস্তারিত জানা যাবে।

যোগ করে মাহি বলেন, আমাদের দেশের ববিতা, শাবানা ম্যাম ছাড়াও বলিউডের অনেকেই বিয়ের পর তাদের ক্যারিয়ারের ভীত মজবুত করেছেন। যেমন- শাহরুখ খান, আমির খান, কাজল, মাধুরী দীক্ষিত ছাড়াও অনেকে বিয়ের পর অভিনয়ে মনোযোগী হয়েছেন।

তারাও তো বিয়ে-সংসারের মাঝেও সুপারহিট ছবি উপহার দিয়েছেন। তাছাড়া হলিউডের দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাবো অনেকে নতুন এসে দু`একটি ছবিতে কাজ করেই লিভ টুগেদার করেছেন। পরে তারাও তো সফল হয়েছেন। আর আমি তো ধর্ম মোতাবেক বিয়ে করেছি।

এটা একদিন না একদিন করতে হতো। সুতরাং আমি শুধু বলতে চাই- মাহি যেমন চলচ্চিত্রের সঙ্গে ছিল এখনো আছে এবং আগামীতেও থাকবে। বাংলাদেশে যতদিন একজন দর্শকও আমার ছবি দেখবেন ততদিন আমি ছবিতে কাজ করবো।

আমার বিশ্বাস আমার প্রতি সকলের ভালোবাসা অটুট থাকবে এবং ভালোবাসায় আগামীতেও আমি ব্যবসা সফল ছবি উপহার দেয়ার চেষ্টা করবো।

প্রসঙ্গত, মাহি বিয়ে করেন গেল বুধবার। তার বর সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কদমতলীর সন্তান। নাম পারভেজ মাহমুদ অপু। উচ্চ শিক্ষিত অপু যুক্তরাজ্য থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে পড়াশোনা শেষ করে পারিবারিক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত আছেন। দুই পরিবারের সম্মতিতে মাহি-অপুর বিয়ে হয়।






Related News

Comments are Closed