Main Menu

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় জাতীয় কবিকে স্মরণ

আজ বুধবার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৭ তম জন্মবার্ষিকী। এ উপলক্ষে কবির প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাচ্ছেন সর্বস্তরের মানুষ। এবার কবির জন্মবার্ষিকীর মূল অনুষ্ঠান হচ্ছে চট্টগ্রামে। বেলা ১১টায় চট্টগ্রামের এম এ আজিজ আউটার স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে ‘সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতা রোধে নজরুলের প্রাসঙ্গিকতা’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কবির সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। শ্রদ্ধা জানিয়েছে রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। কবির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন।

নানা আয়োজন ও উদ্যোগের মধ্য দিয়ে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা একাডেমি, নজরুল ইনস্টিটিউট, শিল্পকলা একাডেমি কবির জন্মবার্ষিকী উদ্‌যাপন করছে। এর মধ্যে আছে আলোচনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্মরণিকা ও পোস্টার মুদ্রণ, কবির ছবি, পোস্টার ও বই প্রদর্শনী, পাঠ প্রতিযোগিতা, রচনা প্রতিযোগিতা ইত্যাদি।

বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতারসহ বেসরকারি চ্যানেলগুলো কবিকে নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের অনুষ্ঠান ও অন্যান্য অনুষ্ঠান সম্প্রচার করছে।

কবির স্মৃতিবিজড়িত ময়মনসিংহের ত্রিশাল ও কুমিল্লার দৌলতপুরে স্থানীয় প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় কবির জন্মবার্ষিকী পালন করা হচ্ছে।

১৮৯৯ সালের এই দিনে (১১ জ্যৈষ্ঠ, ২৫ মে) ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার আসানসোল মহকুমার চুরুলিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন নজরুল। তিনি ছিলেন বিংশ শতাব্দীর অন্যতম জনপ্রিয় অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, নাট্যকার, সংগীতজ্ঞ, সাংবাদিক, সম্পাদক, রাজনীতিবিদ ও দার্শনিক।






Related News

Comments are Closed