Main Menu

কারাগারের বন্দীরা ইফতারে যা খাচ্ছেন

সারাদিন রোজা রাখার পর ইফতারের মেন্যুতে সবাই নিজ নিজ পছন্দের খাবারটি রাখার চেষ্টা করেন। তবে সেই সুযোগ নেই কারাগারে বন্দী আসামিদের। কারা কর্তৃপক্ষের বরাদ্দকৃত ২০ টাকার মধ্যেই ইফতার করতে হয় তাদের।

অনেকটা সাদামাটা তাদের ইফতার মেন্যু। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে একজন সাধারণ কয়েদি ও হাজতির ইফতারের মেন্যুতে থাকে প্রায় ৫ গ্রাম খেজুর, ৫০ গ্রাম মুড়ি, সাড়ে ৭ গ্রাম পিয়াজু, ১০০ গ্রাম ছোলা, ১টি সাগর কলা, ৭ গ্রাম গুড়, ৫ গ্রাম জিলাপি (১টি), ৩ গ্রাম চিড়া ও পানি। প্রতিজন সাধারণ আসামির জন্য ইফতারে সরকারের প্রতিদিনের বরাদ্দ ২০ টাকা ৬৪ পয়সা।

তবে বন্দীদের জন্য বরাদ্দ একটু বেশি। ২৪ টাকা ১১ পয়সা। তাদের ইফতারের মেন্যুটা সাধারণ বন্দীদের মতোই। শুধু সাড়ে ৭ গ্রামের পরিবর্তে তাদের ৮ গ্রাম পিয়াজু দেয়া হয়।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ভিআইপিদের মধ্যে রয়েছেন নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলার অন্যতম আসামি র্যাবের সাবেক অধিনায়ক তারেক সাঈদ, নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ বিএনপির শীর্ষস্থানীয় কয়েকজন নেতা।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের কারাধ্যক্ষ মো. নেছার আলম বলেন, পবিত্র রমজান মাসের ইফতারে বন্দীদের জন্য যে সব ব্যবস্থা নেয়া দরকার ছিল সেগুলো খুব সুন্দরভাবে করা হয়েছে। তাদের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত ইফতার সামগ্রী ও সেহরি তৈরি করা হয়।

হাজতিদের পরিবারের সদস্যরা অনেক সময় তাদের জন্য ইফতার নিয়ে আসেন। নিরাপত্তার স্বার্থে সেগুলো গ্রহণ করা হয় না। তবে মাঝে মাঝে ফাঁসি ও যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ক্ষেত্রে মানবিক বিবেচনায় ইফতার সামগ্রী গ্রহণ করা হয়।

বর্তমানে নাজিমুদ্দিন রোডের পুরাতন কারাগারে মোট ৯ হাজারের মতো কয়েদি ও হাজতি বন্দী রয়েছেন।






Related News

Comments are Closed