Main Menu

রমজানে বাজারে আগুন, মন্ত্রী বললেন না!

প্রতিবারের মত এবারও রমজান শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম সাধারণ মানুষের জন্য গায়ে আগুন লাগার মত হয়েছে। তবে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধির খবর মিথ্যা বলে উড়িয়ে দিলেন বাণিজ্য মন্ত্রী।

রমজান এলেই জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধির যেন হিড়িক পড়ে, এবারত রমজানের এক মাস আগে থেকেই দাম বাড়তে শুরু করেছে। গুটি কয়েক ছাড়া, নিত্যপ্রয়োজনীয় সোলা, চিনিসহ সকল শাক সবজিতেই ২৫ থেকে ৩০ টাকা হারে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ প্রয়োজনীয় কিছু পণ্যের দাম আবার দ্বিগুণও হয়েছে। এর মধ্যে ‘সোলা বেগুন, টমেটো ও শসার বাজারে যেন আগুন’।

রাজধানীর একাধিক কাঁচাবাজার ঘুরে ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারের রমজানে কয়েকটি পণ্যের চাহিদা বেশি হওয়ায় সংকট দেখা দিয়েছে। বাড়তি চাহিদার যোগান দিতে গিয়ে পাইকারি বাজার এক রকম খালি প্রায়।

রাজধানীর মোহম্মদপুর, কাওরান বাজার ও ধানমন্ডির কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সবচেয়ে বেশি বেড়েছে বেগুনের দাম। কারণ রমজানের ইফতারিতে বেগুনের কদর অবশ্যম্ভাবী হয়ে দাঁড়িয়েছে। রমজানের আগে কাঁচা বাজারগুলোতে যে বেগুন বিক্রি হতো ২৫ টাকা থেকে ৩০ টাকায়, রমজান আসতেই বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়।

কথা হয় কাওরান বাজারে আসা (ক্রেতা) মেহজাবিনের সাথে তিনি বলেন, রোজার আগে এমপি মন্ত্রীরা বলেছিল রমজানে কোন পণ্যর দাম বৃদ্ধি পাবে না। কিন্তু এখন কেউই খোঁজ-খবর নিতে আসেনা বাজারে। সব পণ্যর দাম দ্বিগুণেরও বেশী বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা যদি একদিন বাজারে আসত তবে বুঝতে পারত জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে না সাভাবিক রয়েছে।

এদিকে, বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ সংসদ ও বিভিন্ন সভা সমাবেশে বলে আসছেন, রমজানে কোন জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি। সব আগের দামে বিক্রি হচ্ছে। গণমাধ্যমে যে খবর দিচ্ছে তা সঠিক নয়।

পাঁচ রোজায় এসে, প্রতি কেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। টমেটো ৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ১৩০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ থেকে ৭০ টাকা, আলু ৩০ থেকে ৪০ টাকা, কাঁচকলা প্রতি হালি ৪০ টাকা, ধনিয়াপাতা ১৫০ টাকা, কচু ৬০ থেকে ৭০ টাকা। হালি প্রতি লেবু ৪০ থেকে ৫০ টাকা।

প্রতি কেজি মসুর ডাল ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা। (বুটের) ডাল ৬০-৬২ টাকায়, খেসারির ডাল ৮০ থেকে ৮৫ টাকা, বুটের ডালের বেসন ১২০ টাকা, অ্যাংকর ডালের বেসন ৮০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া গরুর মাংস ৪৬০ থেকে ৫০০ টাকা, প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৮৫ টাকা থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।






Related News

Comments are Closed