Main Menu

সিরিয়ায় বোমা হামলায় নিহত ১০০

সিরিয়ার আলেপ্পো প্রদেশের কয়েকটি স্থানে সোমবার রাত ও মঙ্গলবার দিনের হামলায় নিহত হয়েছে শতাধিক লোক। আহত হয়েছে বহু লোক। হতাহতের মধ্যে নারী ও শিশু রয়েছে।

মঙ্গলবারে এসব মানুষ মারা গেছে বিমান হামলা, সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে ফেলা ব্যারেল বোমা এবং গোলার আঘাতে।

আলজাজিরা অনলাইনের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সিরিয়ার আলেপ্পো প্রদেশের গালহেন, ফেরদোস এবং জিসর আল-হাজ শহরে ব্যারেল বোমা ফেলা হয়েছে। এতে নিহত হয়েছে নয়জন, যার মধ্যে দুজন শিশু।

সালাহাদিন, সুকারি, মালাহ এবং ক্যাস্টেলো শহরে পৃথক হামলায় নিহত হয়েছে আরো ২৫ জন। এ শহরগুলোতে গোলা ও বিমান হামলা চালানো হয়েছে।

সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিমান হামলা অব্যাহত থাকে। এসব হামলায় নিহতের পাশাপাশি বহু লোক আহত হয়েছে।

আহতদের মধ্যে একজন নিরপেক্ষ সাংবাদিক রয়েছেন। হাদি আল-আবদুল্লাহ নামের এ সাংবাদিক আলেপ্পোয় দীর্ঘদিন ধরে সংবাদ সংগ্রহের কাজ করছেন।

আলেপ্পোর বিদ্রোহীনিয়ন্ত্রিত এলাকায় সরকারি বাহিনী ব্যাপক অভিযান চালাচ্ছে। প্রতিরোধ হামলা চালাচ্ছে বিদ্রোহীরা। মঙ্গলবার আলেপ্পোর বিভিন্ন এলাকায় সরকারি বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে ৭০ জন বিদ্রোহী যোদ্ধা নিহত হয়েছে।

সবমিলে মঙ্গলবার নিহত হয়েছে শতাধিক মানুষ। আলেপ্পোর পুরো নিয়ন্ত্রণ নিতে গত মাস থেকে অভিযান চালিয়ে আসছে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বাহিনী।

মঙ্গলবার জেইতান এবং কালাসা এলাকা থেকে বিদ্রোহীদের হটিয়ে দেয় সরকারি বাহিনী। তবে এ দুই এলাকার নিয়ন্ত্রণ ফিরে পেতে পাল্টা হামলা অব্যাহত রেখেছে বিদ্রোহীরা।

২০১২ সাল থেকে যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে আলেপ্পো। বর্তমানে এখানে সরকার, বিদ্রোহী, কুর্দিবাহিনী এবং ইসলামিক স্টেট (আইএস) যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছে।

সিরিয়ায় ২০১১ সাল থেকে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধ ছয় বছরে গড়িয়েছে। জাতিসংঘের হিসাবমতে, এ যুদ্ধে নিহত হয়েছে ২ লাখ ৮০ হাজার মানুষ। সিরিয়ায় নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত তার ব্যক্তিগত হিসাব থেকে জানান, নিহতের সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়েছে। বাস্তুচ্যুত হয়েছে ৮০ লাখ মানুষ।






Related News

Comments are Closed