Main Menu

থাইল্যান্ডের ‘ওয়াট রং খুন’ মন্দির

থাইল্যান্ডের বিখ্যাত মন্দির ওয়াট রং খুন। মন্দিরটি শ্বেতমন্দির নামেই বেশি পরিচিত। এ বৌদ্ধ মন্দিরটি যেনো স্বর্গের অপরূপ সৌন্দর্য নিয়ে ঠায় দাঁড়িয়ে আছে। দৃষ্টিনন্দন কারুকাজ আর শ্বেতশুভ্র অবয়বে অপার মহিমা ঘোষণা করছে যেনো।

মন্দিরটি ঐশ্বরিক অনুপ্রেরণার একটি উপকরণ হলেও, এটি বানিয়েছেন একজন মানব সন্তান। ১৯৯৭ সালে চালার্মচাই কোসিতপিপাত নামে এক শিল্পী এর নকশা করেন।

মন্দিরের মর্মর পাথরের মূর্তিগুলো দেখলে মনে হবে যেন সত্যি সত্যি স্বর্গের পরী নেমে এসেছে মাটিতে। কারুকার্যময় দুর্লভ শ্বেতহস্তী। শুঁড় তুলে চেয়ে আছে দিগন্তের পানে। ধ্যানরত বুদ্ধের মূর্তি যেন যেকোনো মুহূর্তে হাতে তুলে বলে উঠবে নিজের আলোয় আলোকিত হও। এমন অবাক করা আরো বিভিন্ন দৃষ্টিনন্দন কারুকার্য খচিত ভাস্কর্য, তোরণ, ফলক রয়েছে পুরো মন্দিরজুড়ে।

কিছুদিন আগে ভূমিকম্পে মন্দিরটি প্রায় ধ্বংস হয়ে যায়। কিন্তু কোসিতপিপাত পুনরায় এর স্বরূপে ফিরিয়ে আনেন। তবে এখনও কিছু ফাটলের কাজ মেরামত সম্পন্ন করা বাকি রয়েছে। তাই কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে এখানে আগত দর্শনার্থীরা শুধু বাইরে থেকেই এই মন্দিরের ছবি তুলতে পারেন।






Related News

Comments are Closed