Main Menu

যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদে রদবদল

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদে রদবদল করেছেন থেরেসা মে। এর মধ্যে সবচাইতে আলোচিত বদলটি হয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী পদে। ব্রেক্সিট এর পক্ষে থাকা লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসনকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী করেছেন থেরেসা মে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী করা হয়েছে অ্যাম্বার রাড এমপিকে।

এ ছাড়াও ফিলিপ হ্যামন্ডকে করা হয়েছে নতুন চ্যান্সেলর এবং ডেভিট ডেভিসকে ব্রেক্সিট সেক্রেটারি।

গত মাসে অনুষ্ঠিত গণভোটে যুক্তরাজ্যের ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়ার পক্ষে প্রচারে নেতৃত্ব দাতাদের অন্যতম ছিলেন বরিস জনসন। ভোটের ফল প্রকাশের পর ডেভিড ক্যামেরন প্রধানমন্ত্রীত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিলে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জনসনের নাম আলোচনায় এলেও পরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাঁড়ান তিনি।

ক্যামেরন বুধবার বাকিংহাম প্যালেসে গিয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার পর থেরেসা মেকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার আমন্ত্রণ জানান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। পরে প্রধানমন্ত্রীর দফতর-বাসভবন ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে এসে নতুন মন্ত্রী নিয়োগ দেন মে।

লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসনকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিয়োগ দেওয়ার পাশাপাশি ক্যামেরনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ডকে অর্থমন্ত্রী করেছেন তিনি। এদিকে চ্যান্সেলরের দায়িত্বে থাকা জর্জ ওসবর্নকে চাকরীচ্যুত করা হয়েছে। বিবিসি।






Related News

Comments are Closed