Main Menu

শ্রীমঙ্গলে জমে উঠেছে ঈদের বেচাকেনা

পংকজ কুমার নাগ, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি:

ঈদকে সামনে রেখে কেনাকাটা জমে উঠেছে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার অভিজাত মার্কেট ও বিপনি বিতানগুলো। শুধু তাই নয় ঈদে নতুন জামা কাপড় কিনতে ফুটপাতসহ সর্বত্রই লেগেছে কেনাকাটার ধুম। নতুন কাপড়ের সাথে সাথে জুতার দোকানেও ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষনীয়। ঈদের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই ব্যস্ত হচ্ছেন দোকানীরা। ঈদ বাজারের অভিযাত মার্কেট গুলোর মধ্যে অনত্যম মার্কেট হচ্ছে, শ্রীমঙ্গল শহরের শাপলা সুপার মার্কেট, মিতালী ম্যানশন, মিদাদ শপিং সেন্টার, খাতুন ম্যানশন, নিউ মাকের্ট , ও,পোষ্ট অফিস রোডস্থ এম সাইফুর রহমার মার্কেটসহ অন্যান্য শপিং সেন্টারগুলোতে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এছাড়াও শ্রীলক্ষী বস্ত্রালয় ,লোকনাথ বস্ত্রালয়, গীতাশ্রী বস্ত্রালয়, এমবি ক্লথ ষ্টোর ও বিলাশ ডিপাটমের্ন্টাল ষ্টোরেও দেখা গেছে ক্রেতাদেও উপচেপড়া ভিড়। তবে রমজান মাসে শহরের ফুটপাত উচ্ছেদ এর কারণে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হয়েছে সবচেয়ে নিন্ম আয়ের সাধারণ মানুষদের। তাদের একমাত্র ভরসা নতুন বাজার পোষ্ট অফিস রোডস্থ এম সাইফুর রহমার মার্কেট। নিম্ন আয়ের মানুষরা ভীড় জমাচ্ছেন ওই মার্কেটের দোকান গুলিতে। অবশ্য ঈদকে সামনে রেখে অযৌক্তিকভাবে কাপড়ের মূল্যবৃদ্ধির অভিযোগ করেছেন ক্রেতারা। অভিযাত মার্কেটের দোকানিরা জানান, এবারের ঈদে ইন্ডিয়ান কাপড়ের চাহিদা বেশী। তাই তারা ক্রেতাদের চাহিদা অনুয়ায়ী দোকান সাজিয়েছেন। তারা জানান, মেয়েদের সবচেয়ে বেশী চাহিদার শীর্ষে আছে বজরঙ্গী ভাইজান, বাজিরাও মান্তানী ও সারামা স্কার্ট।

ইতিমধ্যে অনেক প্রবাসীরা ছুটি কাটাতে এবং তাদের প্রিয় আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে দেশে এসেছেন। তারাও অভিযোগ করছেন পন্য সামগ্রীর দামের ব্যাপারে, এ প্রসঙ্গে শ্রীমঙ্গল শাপলা মার্কেটে ঈদ শপিং করতে আসা আহমেদ জনি, সিহাব রেজা, খোরশেদ মির্জা জানান ঈদের আগে পোষাক-আশাকের দাম স্বাভাবিক থাকলেও ঈদের সময় ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন পোষাকের দাম বাড়িয়ে দেন। ফলে ক্রেতাদের বাধ্য হয়ে কয়েকগুণ বেশিদামে পোষাক-আশাক কিনতে হচ্ছে। শেষ সময়ে কাপড়ের দোকানগুলোতে পছন্দের কাপড় হয়ত নাও থাকতে পারে সেই ভয়ে ক্রেতারা আগেভাগেই পোষাক কিনে নিয়েছেন। এবারের ঈদবাজারে মেয়েদের শাড়ি, থ্রী পিছ, সেলোয়ার-কামিজ, ফতোয়া, স্কার্ট-টপস, ছেলেদের লং ও শর্ট পাঞ্জাবি, ফতোয়া, শার্ট, জিন্স ও টি-শার্টসহ বাচ্চাদের নানা রঙ ও ডিজাইনের পোষাকের সমাহার ঘটেছে বিভিন্ন পোষাক বিপনীতে।

বরাবরের মতো ইন্ডিায়ান সিরিয়ালের নামে ঈদে ইন্ডিয়ান কাপড়ের চাহিদা থাকে বেশী। তাই তারা ক্রেতাদের চাহিদা অনুয়ায়ী দোকান সাজিয়েছেন। তিনি আরো জানান মেয়েদের সবচেয়ে বেশী চাহিদার শীর্ষে আছে বজরঙ্গী, ভাইজান,বাজিরাও মান্তানী ও সারামা স্কর্ট। এসকল পোষাকের দাম ১ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

আইন শৃংখলার ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাহবুবুর রহমান জানান, ঈদ উপলক্ষে মানুষ যাতে নিরাপদ ও শান্তিপুর্ণ ভাবে কিনা কাটা করতে পারে এর জন্য প্রত্যোক মার্কেটের সামনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শহরের প্রত্যোকটি এলাকায় মটর সাইকেল দিয়ে টহল দেওয়া হচ্ছে এবং সাদা পোষাকে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও পুলিশের নিয়মিত টহল অব্যাহত আছে।






Related News

Comments are Closed