Main Menu

গাজীপুরে হত্যা মামলায় বাবা-মা-ছেলের ফাঁসি

গাজীপুরে মোছা. সাফিয়া বেগম (৬৫) নামে এক নারীকে হত্যার দায়ে একই পরিবারের তিনজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক মো. ফজলে এলাহী ভূইয়া এ রায় দেন।

একই সঙ্গে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অন্য একটি ধারায় তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার ভবনাথপুর গ্রামের মৃত মুনসুর আলীর ছেলে সিদ্দিক ভান্ডারী, তার স্ত্রী আয়েশা খাতুন ও ছেলে তারেক ওরফে মুরাদ হোসেন। তারা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের দক্ষিণ খাইলকুর এলাকায় ভাড়া থাকতেন।

গাজীপুর আদালতের অতিরিক্ত পিপি মো. আতাউর রহমান খান জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের দক্ষিণ খাইলকুর এলাকার মো. জমির হোসেন পাইকের স্ত্রী মোছা. সাফিয়া বেগম ২০০৮ সালের ১৪ মে বিকেলে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন। পরদিন ভোর ৫টার দিকে বাড়ির কাছে তার লাশ পাওয়া যায়। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন ছিল।

এ ঘটনায় নিহতের স্বামী মো. জাকির হোসেন পাইক বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় অজ্ঞাত আসামির বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে মামলাটি পুলিশ তদন্ত করে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে ওই তিনজনের জড়িত থাকার সম্পৃক্ততা পায়।

তদন্ত শেষে ২০০৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি জয়দেবপুর থানার এসআই সুজায়েত হোসেন ওই তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেন। শুনানি শেষে আদালত বুধবার এ রায় দেন।






Related News

Comments are Closed