Main Menu

তামিম-জিয়াকে ধরিয়ে দিলে ৪০ লাখ টাকা

কানাডাপ্রবাসী তামিম চৌধুরী এবং পলাতক সৈয়দ মো. জিয়াউল হককে ধরতে ২০ লাখ টাকা করে মোট ৪০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে পুলিশ।

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন। জিয়াউল হক সেনাবাহিনীতে মেজর পদমর্যাদায় কর্মরত ছিলেন।

পুলিশের মহাপরিদর্শক বলেন, ‘সম্প্রতি ঘটে যাওয়া জঙ্গি কর্মকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড হচ্ছেন তামিম চৌধুরী ও জিয়াউল হক। তাদের ব্যাপারে কেউ তথ্য দিলে ২০ লাখ টাকা করে পুরস্কার দেওয়া হবে।
পুলিশপ্রধান বলেন, ‘গুলশান, শোলাকিয়া ও কল্যাণপুরের ঘটনার পর তদন্তে এ দুজনের নাম বেরিয়ে আসে। এর মধ্যে তামিম চৌধুরী নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) নতুন অংশকে নেতৃত্বে দেন। তিনি জঙ্গি দলে লোক সংগ্রহ, তাদের অর্থ ও অস্ত্র দেওয়া এবং হামলার পরিকল্পনা সবকিছুই করছেন। তিনি কল্যাণপুরের ওই বাসায় জঙ্গিদের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠকও করেছেন। সিলেট জেলার বাসিন্দা তামিমের কানাডার নাগরিকত্ব রয়েছে। আর জিয়াউল হক জেএমবির পুরোনো একটি অংশ নিয়ে গঠিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) নেতৃত্বে আছেন। তার নির্দেশেই দেশে ব্লগার এবং মাজারসংশ্লিষ্ট মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে।’

আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেন, ‘তাদের দুজনের ব্যাপারে নিবিড় তদন্তের মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তারা দুজনই বর্তমান জঙ্গি কর্মকাণ্ডের সবকিছু করছেন। এ দুজনকে ধরার জন্য পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কিন্তু তাদের পাওয়া যাচ্ছে না। তারা দেশের ভেতরে থাকলেও থাকতে পারেন। এ কারণে কেউ যদি তাদের ব্যাপারে তথ্য দিতে পারেন, তাহলে প্রত্যেকের জন্য ২০ লাখ টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা করা হচ্ছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, ‘এরা দেশের বাইরে আছে না দেশে আছে, তা জানা নেই। তাদের ধরার জন্য প্রয়োজনে আন্তর্জাতিকভাবে সহায়তা চাওয়া হবে। একই সঙ্গে তাদের সম্পর্কে তথ্যদাতার পরিচয় গোপন রাখা হবে।’






Related News

Comments are Closed