Main Menu

ফ্লাট জুতা পড়ার ক্ষতিকর দিক

হিল জুতো পড়রার নানা ক্ষতিকর দিক আমরা জানি। পায়ের হাড়ে ব্যথা, হাঁটুর জয়েন্ট ক্ষয়ে যাওয়া সহ আরও নানা সমস্যা হয় হিল জুতায়। আর এ কারণে অনেকেই ফ্লাট জুতো পরেন। তবে একেবারে ফ্লাট জুতোরও রয়েছে কিছু স্বাস্থ্য ঝুঁকি যা আমরা অনেকে জানি না।

জেনে নিন ফ্লাট জুতা পড়ার ক্ষতিকর দিক-

– ফ্লাট জুতো পড়লে পা মাটি, পানি বা রাস্তার খুব কাছাকাছি থাকে। এতে করে খুব সহজেই পায়ের নখ এবং আঙুল ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হতে পারে। খুব সহজেই পায়ে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করে। সুতরাং একেবারে ফ্লাট জুতো পড়ার আগে ভেবে দেখুন। বিশেষ করে বর্ষাকালের সময়টাতে।

– দীর্ঘদিন ধরে পাতলা সোলের জুতো পড়ার ফলে পায়ের পাতার স্থায়ী ক্ষতি হতে পারে। হ্যামার টো নামক সমস্যা অর্থাৎ পায়ের পাতা বাঁকা হয়ে যাওয়ার প্রবণতা ফ্লাট জুতো পড়ার কারণেই মূলত হয়ে থাকে।

– ফ্লাট জুতো পড়লে পায়ের পুরো পাতার উপরেই চাপ পড়ে। এতে চাপ কিছুটা কমলেও পায়ের পেছনের অংশের উপরেই চাপটা বেশি পড়ে থাকে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় হয় পেশী।

– পায়ের পাতা ছড়িয়ে যাওয়ার সমস্যাও দেখা দেয় ফ্লাট জুতোর ব্যবহারে। আপনি যখন ফ্লাট জুতো পড়েন তখন পা ফেলার সময় পুরো পায়ের পাতা সমান ভাবে পড়ে। ব্যাল্যান্স ধরে রাখার জন্য পায়ের পাতা যতোটা সম্ভব ছড়িয়ে পড়ে। দীর্ঘদিন ফ্লাট জুতো ব্যবহারের কারণে পায়ের আকৃতি নষ্ট হয়ে যায়।

– সারাদিন হাঁটাচলা করতে হলে অনেকেই ফ্লাট জুতো বেছে নেন। কিন্তু আমরা যখন সারাদিন হেঁটে বা দাঁড়িয়ে কাজ করে থাকি তখন হাঁটাহাঁটি করার ফলে আমাদের পায়ের পাতা সাথে ফ্লাট জুতোর ঘর্ষণ বেশি হয় এবং পায়ের পাতার তালুতে জ্বলুনি ও ফোসকার সৃষ্টি হয় যা খুবই যন্ত্রণাদায়ক।

তাই একেবারে ফ্লাট স্যান্ডেল বা জুতো না পড়ে সাধারণ দেড় থেকে দুই ইঞ্চির হিল জুতো পড়ুন। আর দীর্ঘক্ষণ ফ্লাট না পড়ে জুতো ঘুরিয়ে ফিরিয়ে পড়ার অভ্যাস করুন।






Related News

Comments are Closed