Main Menu

সিলেটে ঈদের প্রধান জামাত শাহী ঈদগাহে অনুষ্ঠিত

সিলেটে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহ ময়দানে। বৃস্টি উপেক্ষা করে মঙ্গলবার সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত ওই ঈদগাহে প্রায় লাখো মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করেন।
এতে ইমামতি করেন বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা কামাল উদ্দিন। নামাজ শেষে মুসল্লীরা অশ্রুভেজা কন্ঠে ক্ষমা চান মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে। পাশাপাশি দেশ ও মুসলিম উম্মার শান্তি কামনা করেন তারা।
শাহী ঈদগাহ ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল বাছিত রুম্মানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতারা।
এছাড়া দরগাহে হযরত শাহজালাল (রহ.) জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুস্টিত হয় সকাল ৮টায়।
প্রধান এ দুটি স্থান ছাড়াও নগরীর একাধিক ঈদগাহ, মাদরাসা মাঠ ও মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এর মধ্যে সিলেট কালেক্টরেট জামে মসজিদ, শেখঘাট শেখ ছানা উল­াহ জামে মসজিদ, কালিঘাটস্থ নবাবী জামে মসজিদ ওয়াকফ এস্টেট, মাছিমপুরস্থ শেখ মৌলভী ওয়াকফ এস্টেট জামে মসজিদ, টিলাগড় শাহ মাদানী ঈদগাহ, পাঠানটুলা নবাবী শাহী ঈদগাহ, কুমারপাড়া জামে মসজিদ এবং পশ্চিম পীরমহল­া জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদুল আযহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এছাড়া বেশ কয়েকটি স্থানে একাধিক ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে নগরীর বন্দরবাজারস্থ হাজী কুদরত উল­াহ জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, সকাল সাড়ে ৮টায় এবং সকাল সাড়ে ৯টায় সর্বমোট তিনটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জামেয়া মদিনাতুল উলূম দারুস সালাম খাসদবীর মাদরাসা মাঠে সকাল সাড়ে ৭টায় প্রথম এবং সকাল ৮টায় দ্বিতীয় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সিলেটের প্রায় সব মসজিদেই ঈদের জামায়াত সম্পন্ন হয়েছে। সকাল সাতটা থেকে শুরু হওয়া জামাতগুলো দশটার মধ্যে শেষ হয়ে যায়। বৃষ্টিস্নাত হয়েই ঈদের জামায়াত আদায় করেছেন ধর্মপ্রাণ মানুষেরা। একারণে নামাজ পড়তে ব্যাঘাত ঘটলেও কারও মধ্যে বিরক্তি ছিল না। ভিজে ভিজেই ঈদের নামাজ আদায় করেছেন তারা। বৃষ্টি বিড়ম্বনার মধ্যেও সানন্দেই উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল আযহা।
ঈদের জামায়াত থেকে ফিরেই প্রাণী কুরবানির আয়োজনে ব্যস্ত হয়েছেন সামর্থবানেরা। এই কুরবানি চলবে আরও দু’দিন। ইসলামি বিধানমতে ঈদের দিন ছাড়াও তার পরবর্তী দু’দিনও কুরবানি করা যায়। সেই হিসেবে বুধ ও বৃহস্পতিবারও কুরবানি করবেন অনেকে।






Related News

Comments are Closed