Main Menu

‘আমরা কওমিবিরোধী নই। যারা বিরোধিতা করবে, তাদের রুখে দিতে হবে’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘আমরা কওমিবিরোধী নই। যারা বিরোধিতা করবে, তাদের রুখে দিতে হবে।’

সোমবার বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে ‘মাদ্রাসা শিক্ষাসনদ : গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা’শীর্ষক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এর আয়োজন করে কওমী মাদ্রাসা শিক্ষা পরিষদ।

সম্মেলনে আলেমদের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের জঙ্গি ও মানুষ হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে আরো কথা বলতে হবে। আপনারা কথা বলছেন দেখেই আমরা তাদের প্রতিরোধ করতে পারছি। ইসলামের শত্রুদের রুখে দিতে আলেম-ওলামাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘দেশে হঠাৎ করেই ইসলামের নামে মানুষ হত্যা শুরু হয়। মানুষ হত্যা করলে নাকি বেহেশতে যাওয়া যাবে। তখন মনে হলো আমাদের ঘুরে দাঁড়ানো প্রয়োজন। দেশের আলেম-ওলামাদের সঙ্গে কথা বলা প্রয়োজন। তাই দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। সব সম্প্রদায়ের ধর্মগুরুদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। বাংলাদেশ মুসলিম প্রধান দেশ, তবে অসাম্প্রদায়িক। কোনো ধর্মেই মানুষ হত্যার স্বীকৃতি দেয় না, ইসলামে তা নেই।’

কওমি শিক্ষাসনদ স্বীকৃতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে বলার পর তিনি জানিয়েছেন, এটি তো ডিসাইডেড ইস্যু। কিছু ভুল বোঝাবুঝির জন্য দেরি হচ্ছে। আপনারা যতটুকু এগিয়েছিলেন, এরপর যে সমস্যা হয়েছে সেগুলো চিহ্নিত করে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলুন। আপনারা শুরু করুন, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বসুন। আপনাদের দাবি অপূর্ণ থাকবে বলে মনে হয় না।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ‘কওমি শিক্ষায় শিক্ষিতরা আমাদেরই সন্তান। তারা দীনের সঙ্গে দুনিয়ারও জ্ঞান পাচ্ছে। তাহলে কেন তারা স্বীকৃতি পাবে না। প্রধানমন্ত্রী অনেক ধার্মিক। তিনি নিয়মিত নামাজ পড়েন, রোজা রাখেন। তার সময়ে কওমি শিক্ষাসনদ স্বীকৃতি পাবে না, এমনটি হবে না। সবাইকে নিয়ে একত্রে এগুতে হবে। তাহলে লক্ষ্যে পৌঁছানো যাবে।’






Related News

Comments are Closed