Main Menu

কুয়েতের পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দিলেন দেশটির আমির

কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল আহমাদ আল সাবাহ’র এক ফরমানে দেশটির পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। এই কারণে দেশটিতে সময়ের আগেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার সরকারের জরুরি বৈঠকের পরে দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কুনায় এই বিষয়ে ঘোষণা দেয়া হয়। কুয়েতের আমির তার ফরমানে বলেন, আঞ্চলিক পরিস্থিতি ও নিরাপত্তা ঝুঁকিকে সামনে রেখে ৫০ সদস্যের আইনসভা ভেঙ্গে দেয়া হল। বিবৃতিতে বিস্তারিত কারণ ব্যাখ্যা করা হয়নি।

দেশটির পার্লামেন্টের স্পিকার মারজুক আল ঘানেম নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জের সামনে নতুন নির্বাচন দাবি করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই ঘোষণা আসলো। এর আগে পার্লামেন্টের সদস্যরা পেট্রলের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ও অর্থনৈতিক ও প্রশাসনিক নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য মন্ত্রীদের জেরা করতে তিনটি অনুরোধ করা হয়। এর মাধ্যমে সরকার ও পার্লামেন্টের মধ্যে দ্বন্দ্ব পরিষ্কারভাবে ফুটে উঠেছে।

কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় অবস্থিত দেশটির প্রতিবেশী সৌদি আরব ও ইরাক এবং পারস্য উপসাগরের পাশে রয়েছে ইরান। বিশ্বজুড়ে তেলের দাম কমে যাওয়ায় দেশটিকে অনেক ভর্তুকি কমাতে হয়েছে যার ফলে বিরুদ্ধ মত বৃদ্ধি পাচ্ছে দেশটিতে। জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের হুমকির মধ্যেও রয়েছে দেশটিতে। তবে কুয়েতি নিউজে দাবি করা হয়েছে পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে সম্পূর্ণ অর্থনৈতিক কারণে। ২০১৪ সালের পর থেকে তেলের দাম ব্যারেল প্রতি ১০০ ডলার থেকে কমে অর্ধেক হয়ে গেছে। ১৭৫০ সাল থেকে আল সাবাহ পরিবার কুয়েত শাসন করে আসছে।

নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়নি। দেশটির সংবিধান অনুযায়ী পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেয়ার দুই মাসের মধ্যে নির্বাচন আয়োজন করতে হবে। বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম তেল উৎপাদনকারী দেশটিতে সর্বশেষ নির্বাচন হয়েছিল ২০১৩ সালে। আল জাজিরা।






Related News

Comments are Closed