Main Menu

গাজীপুরে মুন্নি হত্যার অভিযুক্ত আসামির আত্মহত্যা

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় স্কুলছাত্রী মুন্নী হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত আসামি আরাফাত আত্মহত্যা করেছেন। মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) রাতে উপজেলার রতনপুর গ্রামে ফুপুর বাড়িতে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। আরাফাত চাপাইর গ্রামের পরিবহন শ্রমিক নেতা আতাউর সরকারের ছেলে।

মুন্নিকে হত্যা করে আরাফাত পালিয়ে কালিয়াকৈর উপজেলার রতনপুর গ্রামে তার ফুপুর বাড়িতে চলে যান। পরে রাতে সবার অলক্ষ্যে ঘরের ভিতর ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন। বুধবার (২৬ অক্টোবর) সকালে বাড়ির লোকজন ঝুলন্ত আরাফাতের লাশ নামিয়ে চাপাইর গ্রামে নিয়ে যান। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

কালিয়াকৈর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোশাররফ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, উপজেলার কতুবদিয়া এলাকায় ৮ম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রী মুন্নীকে নিজ ঘরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। নিহত মুন্নীর স্বজনদের দাবি, স্কুল ছাত্রী মুন্নী স্কুলে আসায় যাওয়ার সময় আরাফাত সরকার নামে এক যুবক রাস্তায় বিভিন্ন সময় উত্যক্ত করতো। তারই সূত্র ধরে মঙ্গলবার ভোর রাতে মেয়ের ঘরে ঢুকে ওড়না দিয়ে পেছিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় আরাফাত সরকার।






Related News

Comments are Closed