Main Menu

শৈলকুপায় তিন বছর যাবৎ ফেরি অচল ! দেখার কেউ নেই !

জাহিদুর রহমান তারিক- ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সড়ক ও জনপদের দেওয়া দু’টি ফেরিই অচল হয়ে পড়ে আছে তিন বছরেও চালু হয়নি। কোনো কাজ কর্ম ছাড়াই সরকারি বেতন ভাতা উত্তোলন করছে ফেরির কর্মচারীগণ। উপজেলার লাঙ্গলবাঁধ বাজারের খেয়াঘাটে ফেরি দু’টি অচল অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এ বিষয়ে সরকারের নেই কোনো উদ্যোগ।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের প্রথম দিকে সড়ক ও জনপদ বিভাগ উপজেলার লাঙ্গলবাঁধ নাদুরিয়া খেয়াঘাটে যানবাহন পারাপারের জন্য বগুড়া-মাদারীপুর থেকে দু’টি ফেরি নিয়ে আসে। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পরে স্থানীয় বড় মহলের যোগসাজে ফেরি চালক মোজাম্মেল ফেরি চালু করে যানবাহন পারাপার করতে থাকে।

স্থানীয়রা বলেন, রশিদ দিয়ে টোল আদায়ের নিয়ম থাকলেও বিনা রশিদে পারাপারকৃত যানবাহন খেকে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করতে থাকে। বিষযটি কতৃপক্ষ জানতে পারলে ফেরি চালক মোজাম্মেল হকের নামে বিভাগীয় মামলা দায়ের করে। সেই সাথে ফেরি বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে কয়েক লাখ টাকা দিয়ে নির্মাণ করা ফেরি ঘাট ধ্বংশ হয়ে গেছে। ফেরি চালু না হওয়ায় এখানকার যানবাহণ ১’শ কিলোমিটার ঘুরে রাজধানী ঢাকাশহ দেশের বিভিন্ন শহরেও যাচ্ছে। এত কওে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে বর্তমান সরকারের নেতাকর্মীদের নেই কোনো উদ্যোগ। দীর্ঘদিন ধরে ফেরি দু’টি পড়ে থাকার কারণে মূল্যবান যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে যাচ্ছে। এলাকাবাসী এ সমস্যার সমাধান চেয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।






Related News

Comments are Closed