Main Menu

৩ গোলে ব্রাজিলের কাছে পরাস্ত আর্জেন্টিনা

এর আগেও ব্রাজিলের কাছে হেরেছে আর্জেন্টিনা, তবে সেটা রাশিয়ার বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের গত রাতের ম্যাচের মতো ‘অসহায় আত্মসমর্পণ’ ছিলো না। দুর্দান্ত প্রতাপে ৩-০ শূন্য গোলে ধরাশায়ী হবে মেসিরা, এটা বোধহয় ভাবেননি নেইমাররাও। কিন্তু অভাবিতভাবে সেটাই হলো।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে এটা ব্রাজিলের টানা পঞ্চম জয়। অন্যদিকে, হারের বৃত্তেই থাকল আর্জেন্টিনা। পাশাপাশি, রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলার আশা টিকিয়ে রাখার ক্ষেত্রে আরো খানিকটা ব্যাকফুটে চলে গেল আলবিসিলেস্তারা।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে শুক্রবার ম্যাচের শুরু থেকেই প্রভাব বিস্তার করে খেলেছে ব্রাজিল। টিটের শিষ্যদের শুরু থেকেই বেশ আগ্রাসী ফুটবল খেলতে দেখা যায়। সেটার ফলও পেয়ে যায় তারা। ম্যাচের ২৫ মিনিটে কৌতিনহোর অসাধারণ গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

এ সময় মাঝমাঠ থেকে বল পেয়ে যান মার্সেলো। তিনি বল দেন নেইমারকে। চোখের পলকে নেইমার বল দেন কৌতিনহোকে। আর্জেন্টিনার তিনজন খেলোয়াড়কে পরাস্ত করে ডি বক্সের খানিকটা বাইরে থেকে শট নেন। বল গিয়ে তার আশ্রয় খুঁজে পায় (১-০)।

৩৫ মিনিটের মাথায় ব্রাজিলের ডি বক্সের বাইরে ফ্রি কিক পায় আর্জেন্টিনা। এ ধরণের ফ্রি কিক থেকে মেসি প্রায়শই গোল করে থাকেন। কিন্তু আজ গোল করতে পারেননি।

প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে তারকা খেলোয়াড় নেইমার গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। এ সময় থ্রো থেকে বল পেয়ে যান গ্যাব্রিয়েল জেসাস। তিনি বল বাড়িয়ে দেন আর্জেন্টিনার ডি বক্সের মধ্যে ঢুকতে থাকা নেইমারকে। আর্জেন্টিনার গোলরক্ষককে একা পেয়ে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি ব্রাজিলিয়ান সেনসেশান।

ফলে প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিশ্রামে যায় টিটের শিষ্যরা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান ৩-০ করে স্বাগতিকরা। ৫৮ মিনিটে আরো একটি গোল করে ব্রাজিল। রেনাটো আগুস্তোর সহায়তায় গোলটি করে পাওলিনহো। ৬৯ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে আবারো ফ্রি কিক পায় আর্জেন্টিনা। মেসির নেওয়া দারুণ শটটি রুখে দেন ব্রাজিলের গোলরক্ষক।

৭৭ মিনিটে নিশ্চিত গোলের সুযোগ মিস করেন নেইমার। ফলে ৩-০ গোলের জয় নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় টিটের শিষ্যদের।

এ জয়ের ফলে ১১ ম্যাচ থেকে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে ব্রাজিল। সমান ম্যাচ থেকে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠস্থানে (বিপদ সীমা) রয়েছে আর্জেন্টিনা।






Related News

Comments are Closed