Main Menu

ম্যাচ সেরা মুশফিক ও সিরিজ সেরা তাইজুল

ঢাকা টেস্টে জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে দুই ম্যাচের সিরিজ ১-১ ব্যবধানে ড্র করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জয়ের পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ও সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে পাঁচ নম্বরে ব্যাট হাতে নেমে অপরাজিত ২১৯ রানের মহাকাব্যিক ইনিংস খেলেন মুশফিক। ২৬ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ যখন খাদের কিনারায় তখন মাঠে নামেন মুশফিক। শক্ত হাতে দলের হাল ধরেন। এ অবস্থায় ব্যাটিং-এ নেমে মোমিনুল হকের সাথে ২৬৬ রানের দুর্দান্ত একটি জুটি গড়েন মুশফিক। পরে মোমিনুল ১৬১ রানে থেমে গেলেও, ৬৪ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মত ডাবল-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন মুশফিক। উইকেটরক্ষক হিসেবে দ্বিতীয় ডাবল-সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন মুশফিক। মুশফিকের আগে বিশ্বের আর কোন উইকেটরক্ষক দু’টি ডাবল-সেঞ্চুরি করতে পারেননি।

নিজের বিশ্বরেকর্ড গড়া ইনিংসে ১৮টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন মুশফিক। এজন্য ৫৮৯ মিনিট ক্রিজে ও ৪২১টি বল খেলেছেন তিনি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের হয়ে রেকর্ডও গড়েছেন মুশি। বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান আমিনুল ইসলাম দেশের ও নিজের অভিষেক ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ৫৩৫ মিনিট ক্রিজে ছিলেন আমিনুল। আর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ৫৮৯ মিনিট ক্রিজে থাকেন মুশফিক। আবার সবচেয়ে বেশি বল খেলাতে বাংলাদেশের ও বিশ্বের সর্বকনিষ্ট টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ আশরাফুলকে পেছনে ফেলেন মুশফিক। ২০১৩ সালে গল টেস্টে শ্রীলকার বিপক্ষে ৪১৭ বল মোকাবেলা করেছিলেন অ্যাশ। এক্ষেত্রে আশরাফুলকে টপকে যান মুশফিকুর।

পুরো সিরিজের সেরা বোলার হলেন বাংলাদেশের তাইজুল ইসলাম। ২ ম্যাচের ৪ ইনিংসে ১৪৫ দশমিক ৪ ওভার বল করে ৩৭০ রানে ১৮ উইকেট শিকার করেন তিনি। ফলে সিরিজ সেরা হন তাইজুল। খবর বাসসের।

Share Button





Related News

Comments are Closed