Main Menu

হরিণাকুন্ডুতে আগুনে পুড়লো পান বরজ, ক্ষতি ৪ কোটি!

ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে উপজেলার কাপাশহাটিয়া ইউনিয়নের শিতলী গ্রামের ৪৫ জন কৃষকের পান বরজে আগুনে লেগে ৭৫ বিঘা জমির পানক্ষেত পুড়ে ছাই হয়েছে। এতে আনুমানিক প্রায় ৪ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। রোববার বিকেলে এ আগুন জ্বলতে দেখে এলাকার শতশত পানচাষি একত্রে মিলে আগুন নেভানোর চেষ্টা করা হয়। এমনকি মসজিদের মাইকে পন বরজে আগুন লাগার খবর প্রচার করলে এলাকাবাসি ও হরিণাকুন্ডুতে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করা হয়। ঝিনাইদহ ফায়ার সার্ভিসের আরো একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে ঘন্টাব্যাপি চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষনে শিতলী গ্রামের প্রায় ৪৫ জন কৃষকের ৭৫ বিঘা জমির পানক্ষেত পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ ব্যাপারে হরিণাকুন্ডুতে ফায়ার সার্ভিস এর স্টেশন অফিসার মোঃ আয়ুব হোসেন চৌধুরী বলেন, পানক্ষেতে যাওয়ার কোন রাস্তা না থাকায় অনেক দেরী হয়ে গেছে। পরে কোন উপায়ন্ত না পেয়ে ফসলের মধ্যদিয়েই ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করি। ক্ষতিগ্রস্থ পানচাষিরা হলেন, ইতাহার লস্কারের ছেলে ঝন্টু, আপিল উদ্দিনের ছেলে মতিয়ার রহমান, মোনারের ছেলে রতন আলী, সিরাজের ছেলে মশিউর রহমান, ফজলে করিমের ছেলে সিদ্দিক, গনিরদ্দির ছেলে সেলিম, কুরবান, সাকের আলীর ছেলে টুলুসহ ৪৫ জন কৃষকের পানক্ষেত পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ এক পানচাষি বলেন, আমারসহ আমাদের এলাকার পানচাষিরা সর্বশান্ত হয়ে গেল। সরকার যদি আমাদের পাশে না দাড়ায় তাহলে আমাদের পথে বসা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবে না। আগুনের সংবাদ পেয়ে হরিনাকুন্ডু উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইন ও কৃষি কর্মকর্তা হাফিজ হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্থ পানচাষিদের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।






Related News

Comments are Closed