ভারত ও পাকিস্তানকে পরমাণু শক্তিধর দেশ বলে চীন মনেই করে না


আপডেট: ৯:০৬:০৯, ০৪ মার্চ ২০১৯, সোম বার
ভারত ও পাকিস্তানকে পরমাণু শক্তিধর দেশ বলে চীন মনেই করে না

সাম্প্রতিক উত্তেজনা চলাকালে ভারত-পাকিস্তান দুই দেশই একে অপরকে পরমাণু বোমা মারার হুমকি দিচ্ছে। এ পরমাণু যুদ্ধ হওয়ার হুমকিতে ভীত সারা বিশ্বও। তবে চীন বলছে, ভারত ও পাকিস্তানকে পরমাণু শক্তিধর দেশ বলে মনেই করে না তারা।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং এক বিবৃতিতে বলেন, ‘চীন পারমাণবিক শক্তিধর দেশ হিসেবে ভারত ও পাকিস্তানকে স্বীকৃতি দেয়নি। উত্তর কোরিয়াকেও পরমাণু শক্তিধর দেশ বলে মনে করে না চীন। এই অবস্থান থেকে চীন কখনোই সরে আসেনি।’

ভিয়েতনামে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার কিম-জং-উনের বৈঠকের পরও তা মানতে রাজি নয় চীন। চীনের ওই কর্মকর্তা বলেন, এই ব্যাপারে আমাদের অবস্থান কখনই পরিবর্তিত হয়নি। আগেও যা ছিল, এখনও তা আছে। উল্লেখ্য, ভিয়েতনামের হ্যানয়ে দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলনে উত্তর কোরিয়ার তরফে নিউক্লিয়ার প্রসেসিং প্ল্যান্ট বন্ধ করার প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়ায় ট্রাম্প-কিম আলোচনা ব্যর্থ হয়।

৪৮ সদস্যের পারমাণবিক সরবরাহকারী গোষ্ঠী (এনএসজি)-তে ভারতের অন্তর্ভুক্তিতেও প্রথম থেকে বাধা দিয়ে আসছে চীন। এই বাধা দেওয়ার কারণ হিসেবে চীনের যুক্তি পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ চুক্তিতে এখনও স্বাক্ষর করেনি নয়াদিল্লি। ভারতের পর এনএসজি-র সদস্য হতে আবেদন জানায় পাকিস্তান।

সেইসময় একইভাবে চীন প্রস্তাব দিয়েছিল এনএসজি-র সদস্য হতে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ চুক্তিতে সই করতে হবে। তবেই তারা এনএসজি-র সদস্যপদ পাবে।

Go to top